আদিবাসী হিসেবে স্বীকৃতিসহ ৭দফা দাবী উত্থাপিত

Khagrachhari pic-03নিজস্ব প্রতিবেদক ।। খাগড়াছড়িতে র‌্যালী ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস পালিত হয়েছে। আজ বেলা ১১টায় আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন কমিটি খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা শাখার ব্যানারে টিটিসি এলাকা থেকে র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে মহাজন পাড়াস্থ টং রেস্টুরেন্টে গিয়ে আলোচনা সভা করতে চাইলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ বাঁধা দেয়। পরে জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামানের মৌখিক অনুমতি নিয়ে আলোচনা সভা করে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: সবুর আলী সাংবাদিকদের বলেন, আদিবাসী উদযাপন কমিটির সদর উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসন থেকে র‌্যালী করার অনুমতি নেন। র‌্যালী শেষে আলোচনা সভার অনুমতি না থাকায় তাদের নিষেধ করা হয়। পরবর্তীতে নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসক থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়ে আলোচনা সভা করে।

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন কমিটির জেলা শাখার আহ্বায়ক রবি শংকর তালুকাদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির  একাংশের (এনএম লারমা) সমর্থিত নেতা সুধাকর চাকমা, ভারত প্রত্যাগত উপজাতীয় শরণার্থী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক সন্তু জ্যোতি চাকমা, সদর উপেজেলার ৩নং গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জ্ঞান রঞ্জন চাকমা, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মমশে মারমা প্রমূখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সাড়ম্বরভাবে আজকের এ দিনটিকে পালন করছে। আর বাংলাদেশে এর উল্টো। আমাদের (উপজাতীয়দের) জাতিসত্তাকে বিলুপ্ত করতে সরকার নানা পায়তারা করছে। আর সাংবিধানিক স্বীকৃতি না দিয়ে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। অবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন, আদিবাসীদের স্বীকৃতি প্রদান, ভূমি অধিকার ও স্ব স্ব ভাষায় শিক্ষা ব্যবস্থা চালুসহ ৭দফা দাবী উত্থাপন করেন।

খাগড়াছড়ি নিউজ/এনএম/রোববার; ৯আগস্ট, ২০১৫ইং।।

মতামত...