কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি’র বিরুদ্ধে ত্যাগী নেতাদের দলচ্যুত করার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক।। আগামি ২৪ নভেম্বর খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন, কাউন্সিলর নির্ধারণ ও সম্প্রীতি উপজেলা কমিটি গঠন বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে দলের সহ সভাপতি সমীর দত্ত চাকমা। তিনি আসন্ন জেলা আ’লীগের সম্মেলনের সভাপতি প্রার্থী। দুপুরে জেলা শহরের স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্ট এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে সমীর দত্ত চাকমার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ভাস্কর রঞ্জন সাহা।

লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করে বলা হয়, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা একপেশে ও অগণতান্ত্রিক রাজনীতি কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করছে। সাম্প্রদায়িক আধিপত্য বিস্তার করছেন তিনি। তারই প্রমাণ স্বরূপ সম্প্রীতি জেলার বিভিন্ন উপজেলার কাউন্সিলে তা দৃশ্যামান হয়েছে। এছাড়াও এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা নেতৃত্বের সুযোগ কাজে লাগিয়েত্যাগী ও নির্যাতিত নেতাদের দলচ্যুত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।

আগামী ২৪ নভেম্বর জেলা কাউন্সিলের লক্ষে খাগড়াছড়ির ৯ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও পৌর আওয়ামীলীগের যে কাউন্সিল সম্পন্ন করা হয়েছে তা অগণতান্ত্রিক ভাবে গঠিত হয়েছে দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে জেলা সম্মেলনের কাউন্সিলরদের তালিকা প্রত্যাখান করেন সমীর দত্ত চাকমা। কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি’র স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে সমীর দত্ত চাকমা বলেন, টেন্ডারবাজ ও ভাগবাটোয়ারায় জড়িত গুটিকয়েক নেতাদের নিয়ে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা রাজনৈতিক কর্মকান্ডের বলয় তৈরী করেছে। এতে জেলা থেকে শুরু করে উপজেলাগুলোতে সক্রিয় অনেক নেতা আজ নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছে। এনিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ আর শঙ্কা বাড়ছে। যা একসময়ে জন বিস্ফোরণ ঘটবে। তিনি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার প্রতি আহŸান জানিয়ে বলেন, সংগঠনকে সুসংগঠিত করতে দলের জন্য যারা জেল-জুলুম, নির্যাতন ও ত্যাগ স্বীকার করে রাজনীতি করে আসছে তাদেরকে মুল্যয়নের দাবি জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হোসেন আহম্মদ চৌধুরী, পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি তপন কান্তি দে প্রমুখ।
খাগড়াছড়ি।নিউজ/এস/বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯ইং।।

মতামত...