খাগড়াছড়িতে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক।। খাগড়াছড়িতে যথাযোগ্য মর্যাদায় নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে সব সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয়। সকাল ৯টায় সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি শোক র‌্যালি বের করা হয়। এতে স্থানীয় সংসদ সদস্য, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীররা অংশ নেন। শোক র‌্যালিটি শহরের শাপলা চত্ত্বর ঘুরে পৌর টাউন প্রাঙ্গণে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি ভাস্কর্য্যে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। পরে টাউন মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

এসময় বক্তারা মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিচারণ করে বলেন, ১৫ই আগস্ট বাংলাদেশ ও বাঙালির সবচেয়ে হৃদয়বিদারক ও শোকের দিন। বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানা ও চর্চা করতে সবার প্রতি আহবান জানান তারা।

আলোচনা সভা শেষে স্কুল, কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয় পর্যায়ে রচনা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

এর আগে দাঁড়িয়ে একমিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

এছাড়া দিবসটিকে ঘিরে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভিন্ন ভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়।

জেলা আওয়ামী লীগের শোক দিবস পালন: দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, পতাকা উত্তোলন, পুষ্পমাল্য অর্পণসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়িতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও শোক দিবস পালন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। শহরের নারিকেল বাগানস্থ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে দিবসের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে নেতাকর্মীরা।

এ উপলক্ষে সকালে দলীয় কার্যালয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

পরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে একটি শোক র‌্যালি বের করা হয়। এতে দলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পৌর টাউন হল প্রাঙ্গণে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় তারা। সেখানে এক মিনিট নীরবতা পালন শেষে পুনরায় দলীয় কার্যালয়ে ফিরে আলোচনা সভা করা হয়।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

এসময় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ ও বাঙালিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে এদেশের মানুষ কখনো উন্নত দেশের স্বপ্ন দেখতো না। তাই জাতির জনকের সোনার বাংলা গড়তে তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান তারা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলম, জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলম দিদার যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মংশেইপ্রু চৌধুরী অপু, জেলা পরিষদ সদস্য জুয়েল চাকমা ও পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল প্রমুখ।

এদিকে, দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে পৃথকভাবে শোক দিবস পালন করেছে খাগড়াছড়ি পৌরসভা। দুপুরে পৌরসভার মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: শহিদুল ইসলাম।

এসময় পৌর মেয়র রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মাঝে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: হাবিব উল্লাহ মারুফ, পুলিশ সুপার (পদোন্নতি প্রাপ্ত) এমএম সালাহ উদ্দীনসহ ব্যবসায়ী ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

খাগড়াছড়ি নিউজ/এস/বৃহস্পতিবার, ১৫ আগস্ট ২০১৯ইং।।

মতামত...