জন্মদিন উদযাপন খালেদার ব্যক্তিগত বিষয়- মন্তব্য হানিফের

Hanifনিউজ ডেস্ক : জন্মদিন উদযাপন করা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন  আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক যৌথসভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

হানিফ বলেন, ‘উনি (খালেদা জিয়া) এর আগেও ১৫ আগস্ট জন্মদিন উদযাপন করে নিচ-হীন মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। আর ভবিষ্যতেও জন্মদিন উদযাপন করে এ হীন মানসিকতার পরিচয় দেবেন কিনা সেটা তারই ইচ্ছা।’

বিএনপির কাছে বিচার মানেই তালগাছটা আমার বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

প্রসঙ্গত, বুধবার গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার হাইকোর্টের দেয়া আদেশের প্রতিক্রিয়ায় জানিয়ে নয়া পল্টনে দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশে এখন আইন সবার জন্য সমানভাবে প্রয়োগ হচ্ছে না। আইন এখন সবার জন্য সমান নয়। বিচার একেক জনের জন্য একেক রকম চলছে। আমরা দেখছি, একই যাত্রায় দুই ফল। আইন কারও জন্য চলে দ্রুত গতিতে, আবার কারও জন্য চলে ধীরগতিতে।’

রিপনের ওই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে হানিফ বলেন, ‘বিচারব্যবস্থা এক পক্ষ হয় কীভাবে। তারা কোন যুক্তিতে এটা বলেছেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া একটি দুর্নীতি মামলায় টানা ৪৮ বার হাজিরার তারিখ নিয়েছেন। এমন নজির বাংলাদেশে কোথাও আছে কিনা আমার জানা নেই।’

তিনি বলেন, ‘তাদের (বিএনপি) কাছে বিচার মানেই তো তালগাছটা আমার। এ ধরনের মানসিকতা তারাই পোষণ করতে পারে, যাদের আইনের প্রতি আস্থা নাই। তাদের কাছে বিচার মানেই তা তাদের পক্ষে যেতে হবে।’

হানিফ আরো বলেন, ‘বিএনপি যদি বলে, বিচারব্যবস্থা এক পক্ষ হচ্ছে। তাহলে খালেদা জিয়াসহ বিএনপির রাষ্ট্রের প্রতি আস্থা নাই, বিচারব্যবস্থার প্রতি আস্থা নাই, সংবিধানের প্রতি আস্থা নাই এবং আইনের প্রতি আস্থা নাই।’

১৫ আগস্টের কর্মসূচি প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, ‘সভায় ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কর্মসূচির সমন্বয় করা হয়েছে। কর্মসূচির পূর্ণাঙ্গ তারিখ, সময় ও স্থানের বিস্তারিত আগামীকাল প্রেসবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পাঠিয়ে দেয়া হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য আফজাল হোসেন, অসীম কুমার উকিল, মৃণাল কান্তি দাস, কার্যনির্বাহী সদস্য সুজিত রায় নন্দী, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী, যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল, ছাত্রলীগে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নবনির্বাচিত সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন প্রমুখ।

খাগড়াছড়ি নিউজ/ন্যাশনাল ডেস্ক/শা ই/তাং- ০৬ আগস্ট ২০১৫ইং-

মতামত...