পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য অস্ত্র লাগেনা: কংজরী চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক ।। পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য অস্ত্র লাগেনা। সম্প্রীতির মনোভাব ও গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এগিয়ে গেলে পাহাড়ের সকল মানুষ চুক্তির সুফল ভোগ করতে পারবে। বলেছেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী।

তিনি বলেন, চুক্তি একবারই হয়। আর সে চুক্তি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করেছেন। পরবর্তী চুক্তির বাস্তবায়ন ও পাহাড়ের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন সরকার। সকলের উচিত সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে পার্বত্য শান্তি চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নে সরকারকে সহযোগীতা করা।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ কর্তৃক ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে উচ্চ শিক্ষা বৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে জেলার বিভিন্ন সম্প্রদায়ের নির্বাচিত গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন কংজরী চৌধুরী।

তিনি বলেন, আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর চাঁদাবাজি ছাড়া কোন আদর্শ নেই। আধিপত্য বিস্তারে তাদের অস্ত্রের বুলেটে অকালে অনেক প্রাণ ঝরে যাচ্ছে। হত্যা, চাঁদাবাজি করে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। শান্তি প্রতিষ্ঠা ও অধিকার আদায়ে গণতান্ত্রিক নিয়মে আন্দোলন করতে হবে। এর বাইরে গিয়ে কোন কিছু আদায় করা সম্ভব নয়।

এসময় শিক্ষার্থীদের উজ্জ্বল ভবিষ্যত কামনা করে চেয়ারম্যান বলেন, সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির আলো ছড়াতে হবে। পাহাড়ে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজিসহ সকল অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিহারে শিক্ষার্থীদের সজাগ থাকার আহবানও জানান কংজরী চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নুরুজামান, নির্বাহী কর্মকর্তা টিটন খীসা, সদস্য জুয়েল চাকমা, নিগার সুলতানা ও শতরূপা চাকমা প্রমূখ।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়, ডিগ্রী ও অনার্স, উচ্চ মাধ্যমিক, টেকনিক্যালসহ তিন ক্যাটাগরিতে ৩শ’ ৯৩ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে মোট ২০ লক্ষ টাকার শিক্ষা বৃত্তি তুলে দেন অতিথিরা।

ভবিষ্যতে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে এ উদ্যোগটি আরোও বাড়ানোর ঘোষণা দেন সংশ্লিষ্টরা।খাগড়াছড়ি নিউজ/এস/বৃহস্পতিবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং-।।

মতামত...