বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বিএসএফ

ন্যাশনাল ডেস্ক ।। ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার ডাবরি সীমান্তে এক বাংলাদেশিকে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) পিটিয়ে হত্যা করেছে।

হত্যার পর বিএসএফ তার মরদেহ জিরো লাইনে ফেলে রেখেছে বলে দাবি গ্রামবাসীর।

নিহত ব্যক্তির নাম কামাল হোসেন (৩২)। তিনি হরিপুর উপজেলার গেদুরা ইউনিয়নের গেরুয়াডাঙ্গী গ্রামের মৃত আবদুল হাকিমের ছেলে।

কামালের বোনজামাই এমদাদুল হক জানান, শুক্রবার সকালে নাগর নদীর ওপারে বাংলাদেশের ডাবরি (৩৬৯/৩-৪) সীমান্ত এলাকায় তার মরদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। সেখান থেকে তার মরদেহ আনা হয় বাড়িতে।

পরিবারের অভিযোগ, ডাবরির বিপরীতে ভারতের ইসলামপুর জেলার গোয়ালপুকুর থানার ফুলবাড়ি বিএসএফ তাকে পিটিয়ে হত্যা করে জিরো লাইনে ফেলে দেয়। বিজিবি সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে হরিপুর উপজেলার কাঁঠালডাঙ্গী সীমান্তের ৩৭০ মেইন পিলার এলাকার ওপারে নিহত কামাল ভারতে অনুপ্রবেশ করলে দেশটির নারগাঁও বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা তাকে আটক করে।

এ সময় তাকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে মুমূর্ষু অবস্থায় ছেড়ে দেয় বিএসএফ। সেখান থেকে বাড়ি আসার সময় তিনি মারা যান।

গেদুরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদও নিহত কামালের পরিবারের অভিযোগের সঙ্গে একমত পোষণ করেন।

তিনি বলেন, লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। নিহত যুবকের মাথা ও ডান হাতের কুনইসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত ও জখমের চিহ্ন রয়েছে।

ঠাকুরগাঁও-৫০ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম সামিউন্নবী চৌধুরী বলেন, ঘটনাটি কাঁঠালডাঙ্গী সীমান্তে ঘটেছে। তবে কিভাবে মৃত্যু হয়েছে এ বিষয়টি নিশ্চিত না।
#আরটিভি অনলাইন।
খাগড়াছড়ি নিউজ/এস/শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ইং।।

মতামত...