1. admin@khagracharinews.com : admin :
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
Title : TOP NEWS
শান্তি আলোচনার ছত্রছায়ায় সন্ত্রাসীরা অপরাধ কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়েছে: সেনাপ্রধান বৈসাবি উৎসবকে ঘিরে খাগড়াছড়িতে ব্যাপক প্রস্তুতি বান্দরবানের ব্যাংক লুটের ঘটনায় বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে থমথমে থানচি, কুকি-চিনের খোঁজে ড্রোন আঞ্চলিক সংগঠনের বাধায় জনপ্রিয় প্রতিমন্ত্রীর সংবর্ধনা স্থগিত খাগড়াছড়িতে সাংবাদিকদের সঙ্গে রিজিয়ন কমান্ডারের মতবিনিময় পাহাড়ের কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য রক্ষায় সরকার আন্তরিক: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী সাজেকে পাহাড় কেটে সুইমিংপুল নির্মাণ বন্ধের নির্দেশ কেএনএফ সন্ত্রাসীদের কঠোরভাবে দমন করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী খাগড়াছড়ির সব ব্যাংকে নিরাপত্তা জোরদার

কেএনএফ সন্ত্রাসীদের কঠোরভাবে দমন করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খাগড়াছড়ি নিউজ ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৬ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪১ বার পঠিত

 

খাগড়াছড়ি অফিস: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন, পাহাড়ি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান শুরু হয়েছে। এসব স

ন্ত্রাসীদের কঠোরভাবে দমন করা হবে।

শনিবার বেলা ১১টায় বান্দরবানের রুমায় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রুমা ও থানচিতে ব্যাংকে হামলাকারীরা কেএনএফের সদস্য। পার্শ্ববর্তী দেশের সন্ত্রাসীদের থেকে তাদের হাতে অস্ত্র এসেছে।

তিনি বলেন, পাহাড় শান্তিপ্রিয় এলাকা। এখানে শান্তির সুবাতাস বইত। এখানে কোনো অশান্তি হোক তা চাই না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যে ঘটনাই ঘটুক, তদন্ত করে দেশের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

তিনি আরো বলেন, পার্বত্যাঞ্চলকে অশান্ত করতে দেওয়া হবে না। হামলার ঘটনায় কারো গাফিলতি আছে কি না খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এর আগে, হেলিকপ্টারযোগে ঢাকা থেকে বান্দরবানে যান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

গত তিনদিনে পরপর কয়েকটি হামলা, ব্যাংক ডাকাতি, অপহরণ, গোলাগুলি ও অস্ত্র লুটের ঘটনার পর কেএনএফের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় শনিবার থেকে সমন্বিত অভিযান শুরুর কথা রয়েছে।

সম্প্রতি বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে পৃথক ব্যাংকে ডাকাতি, অস্ত্র লুট, থানায় হামলা চালায় কেএনএফ। এ ঘটনায় পর সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শন করতে বান্দরবানের রুমায় গেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

শনিবার সকাল ১১টার কিছু সময় পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রুমা উপজেলা পরিষদে পৌঁছান। সেখানে তিনি বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখছেন।

মন্ত্রীর সফরসূচি অনুযায়ী, বেলা সাড়ে ১২টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক মিলিত হবেন। এদিনই বিকেলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বান্দরবান থেকে ঢাকার পথে রওনা হবেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাতে তারাবি নামাজের সময় বান্দরবানের রুমা শাখা সোনালী ব্যাংক ও আশেপাশের এলাকা ঘিরে ফেলে শতাধিক সশস্ত্র দুর্বৃত্ত।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদ থেকে ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে ধরে নিয়ে ব্যাংকের ভেতরে মারধর করে তারা। পরে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ সময় ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ১০ পুলিশ ও ৪ আনসার সদস্যকে নিরস্ত্র করে ৮টি চাইনিজ অটোমেটিক রাইফেল, ২টি এসএমজি, ৪টি শটগান ও ৪১৫ রাউন্ড গুলি ছিনিয়ে নেয়া হয়। এ ঘটনার ১৬ ঘণ্টা পর থানচিতে আরো দুটি ব্যাংকে ডাকাতি হয়।

 

বৃহস্পতিবার রাতে অপহৃত সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা নেজাম উদ্দিনকে রুমা বাজার থেকে উদ্ধার করে র‍্যাব। এর পরপরই থানচি থানা থেকে গোলাগুলির শব্দ শোনেন স্থানীয়রা। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এই গোলাগুলি চলে।

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরও খবর