পলাতক আসামীসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে রাজন হত্যা মামলার চার্জ গঠন

rajan 1নিউজ ডেস্ক।। সিলেটে শিশু সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার চার্জ গঠন করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা ১টার দিকে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক আকবর হোসেন মৃধার আদালতে কামরুলসহ তিনজন আসামিকে পলাতক দেখিয়ে মোট ১৩ জন আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়।

অভিযুক্তরা হচ্ছেন- সৌদিতে আটক কামরুল ইসলাম, পলাতক থাকা তার ভাই শামীম আহমদ, পলাতক পাভেল।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন- মুহিদ আলম, আলী হায়দার, তাজ উদ্দিন আহমদ বাদল, ময়না চৌকিদার, রুহুল আমিন, দুলাল আহমদ, নুর মিয়া, ফিরোজ মিয়া, আছমত উল্লাহ ও আয়াজ আলী।

এর আগে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে মামলার সৌদি আরবে আটক কামরুলের ভাই মামলার অন্যতম আসামি মুহিত আলমসহ কারান্তরীণ ১০ জনকে আদালতে হাজির করা হয়। তাদের উপস্থিতিতে প্রায় এক ঘণ্টা শুনানি হয়। পরে বিচারক ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলার অভিযোগ গঠন করেন।

এ সময় বাদি পক্ষের আইনজীবী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- অ্যাডভোকেট এমাদ উল্লাহ শাহীন ও অ্যাডভোকেট শওকত চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন- অ্যাডভোকেট মফুর আলী ও ইশতিয়াক আহমদ চৌধুরী।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১, ৪, ৭, ৮, ১১, ১২, ১৩ ও ১৪ অক্টোবর রাজন হত্যা মামলার সাক্ষিদের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ সেপ্টেম্বর এই মামলার চার্জ গঠনের কথা থাকলেও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হাজির না থাকায় তা পেছানো হয়। সেই সঙ্গে রাষ্ট্রপক্ষকে পলাতক তিন আসামির পক্ষে আইনজীবী নিয়োগেরও নির্দেশ দেন আদালত।

গত ৭ সেপ্টেম্বর সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতের বিচারক সাহেদুল করিম মামলাটির বিচারিক কার্যক্রমের জন্য মহানগর জেলা ও দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধার আদালতে হস্তান্তর করেন।

এর আগে গত ৩১ আগস্ট সৌদি আরবে আটক কামরুলসহ পলাতক আসামিদের আত্মসমর্পণে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক।

গত ৮ জুলাই নগরীর কুমারগাঁও এলাকায় একটি গ্যারেজের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে নির্মমভাবে খুন করা হয় সামিউল আলম রাজনকে।

খাগড়াছড়ি নিউজ/বিএম/এনএম/মঙ্গলবার; ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ইং।।

মতামত...